মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

শাল্লা সদর ইউনিয়নের ইতিহাস

সুনামগঞ্জ জেলা সদর থেকে ৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন উপজেলা যার নাম শাল্লা।

অনেকই বলে থাকেন শাল্লায় রহমত আছে আল্লাহর, আর আল্লাহ ভরসা করেই ঝুঁকি নিয়েই চলাচল করতে হয় শাল্লা বাসীকে। শাল্লা গ্রামের নামানুসারে ১৯৬২ সালে শাল্লা  ইউনিয়ন কাউন্সিল গঠিত হয় । উহার উত্তরে-পূর্বেঃ হবিবপুর ইউপি, পশ্চিমে- আটগাঁও ইউপি এবং দক্ষিণে- শাল্লা ইউপি

৪ টি ইউনিয়ন নিয়ে ছোট্ট উপজেলা শাল্লা। উপজেলার পূর্ব দিকে হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলার পাহাড়পুর বাজার, পশ্চিমে নেত্রকোণা জেলার খালিয়াজুরী উপজেলার কৃষ্ণপুর বাজার, দক্ষিণে কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা উপজেলার আমিরগঞ্জ বাজার ও নদীর পূর্ব দিকে আজমিরীগঞ্জ উপজেলা সদর, আর উত্তর দিকে রয়েছে নিজ জেলার দিরাই উপজেলা।

শাল্লা সদর থেকে দিরাই এ মোটর সাইকেল যোগে যেতে হয়।

প্রথমে শাল্লা কলেজ সংলগ্ন ব্রিজের উপর যেতে হবে পায়ে হেঁটে, এবার দেখতে পারবেন মোটর সাইকেল যোগে দিরাই যাওয়ার রাস্তা।

আজমিরীগঞ্জ যাওয়ার রাস্তায় আছে দুটি ঝুঁকিপূর্ণ সাঁকো দামপুর কেয়াঘাট ও ভেহেড়ামোনা বাঁধ। কৃষ্ণপুর রাস্তায় সুলতানপুর কেয়াঘাটের সাঁকো, আর পাহাড়পুর যেতে চাইলে মোটর সাইকেল যোগে

 

 

 

ছবি

 

সংযুক্তি

 

সংযুক্তি (একাধিক)

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter